ফুলপুরে মেয়ের বাড়ি আসার পথে অজ্ঞান পার্টির খপপরে ঢালী

Manik-Dhali2422.jpg

এম এ মান্নান:
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার সোনাবর গ্রামের মানিক ঢালী (৫০) মেয়েকে দেখতে ফুলপুর আসার পথে অজ্ঞানপার্টির খপপরে পড়েন। শুক্রবার আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শেরপুরের শিশির পরিবহণে এ ঘটনা ঘটে। শুক্রবার বিকাল পৌনে ৪টার সময় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অজ্ঞান অবস্থায় ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।
জানা যায়, মানিক ঢালী শুক্রবার সকালে ময়মনসিংহের ফুলপুরে মেয়েকে দেখতে ট্রেনে ময়মনসিংহ আসেন। তার মেয়ে সালমা আক্তারের বাড়ি ফুলপুর পৌরসভার আমুয়াকান্দা বাজার সংলগ্ন চরকাজিয়াকান্দা গ্রামে। ওই গ্রামের নবী হোসেনের ছেলে সাদ্দাম হোসেন তার মেয়ের জামাই। ট্রেন থেকে নেমে ব্রিজ মোড় এসে শেরপুরের শিশির পরিবহণ নামে একটি বাসে চড়েন তিনি। ওই বাসের হেলপার পার্থ জানান, মানিক ঢালী ফুলপুর নামবেন বলে বাস ভাড়াও দিয়েছেন। পরে ফুলপুরে যাত্রী নামিয়ে আমরা যখন শেরপুরের দিকে যেতে থাকি তখন সাহাপুর পর্যন্ত গেলে চেক দিয়ে দেখি ঢালী নামেননি। তিনি অজ্ঞান অবস্থায় সীটে পরে আছেন। ড্রাইভার শ্যামল জানান, পরে আমরা বাস থামিয়ে তার চিকিৎসার জন্যে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি। তখন আশপাশের লোকেরা বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে দেয়। এরপর ঢালীর পুত্রা সালমার ভাসুর মোস্তফা কামাল ফেইসবুকে খবর পেয়ে হাসপাতালে আসেন। তিনি জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার আগেও ঢালীর সাথে মোবাইলে কথা হয়েছে। এরপর থেকে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। তিনি আরো জানান, ঢালীর সাথে পরনের লুঙ্গি আর জামাটা ছাড়া কিচ্ছু নেই। সব নিয়ে গেছে। এস আই কবির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং ঢালীর হুঁশ না ফেরা পর্যন্ত ড্রাইভার, হেলপার ও বাসটি জব্দ করে রাখেন। ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. সূচনা জানান, ঢালীর চিকিৎসা চলছে। তবে বিকাল পৌনে ৪টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তার হুঁশ ফিরেনি।

Share this post

PinIt
scroll to top