দারুল ইহসান কাসিমিয়া (এক্সিলেন্ট) মাদরাসায় অভিভাবক সম্মেলন

Phulpur-Pic-oni.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ময়মনসিংহের ফুলপুর সরকারি কলেজ রোডে অবস্থিত দারুল ইহসান কাসিমিয়া (এক্সিলেন্ট) মাদরাসায় অভিভাবক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বাদ যুহর অত্র মাদরাসা হলরুমে ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠানের প্রিন্সিপাল মাওলানা মো. আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে ইলমের ফজীলত ও গোরাবা ফান্ড গঠন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জামে মসজিদের ইমাম ও খতীব অত্র প্রতিষ্ঠানের নাজিমে তালীমাত হাফেজ মাওলানা ইলিয়াস আহমাদ। এর আগে ইহসানুল মান্নান, আশরাফুল ইসলাম বিন শফিকুল ইসলাম, তালহা বিন সিদ্দিক, জাহিদ বিন রাসেল, ইয়াহইয়া বিন মেছের আলী ও মবিন আল হাসান আরাবীর কুরআন তিলাওয়াত ও সভাপতির স্বাগত: বক্তব্যের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলন শুরু হয়। এতে হামদে বারী তায়ালা ও নাতে রাসূল(সা.) পাঠ করেন, রবিউল হাসান আপন, সিয়াম বিন আতিক, তালহা বিন সিদ্দিক ও আফফান রহমান জারিফ বিন জুনাইদ। অভিভাবকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মফিদুল ইসলাম সরকার ফকির, আবু বকর সিদ্দিক, মাসউদ হাসান, ইকবাল হাসান, মাওলানা আজহারুল ইসলাম দুলাল, ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ। এ সময় হাফেজ মো. ফখরুল ইসলাম শাকিল, মাওলানা আশরাফ আলী, হাফেজ নাঈম বিন কালাম, আবুল হোসেন, মহিলা অভিভাবক তাসলিমা, ফাতেমা, শাহনাজ পারভীন, আকলিমা খাতুন, হুসনে আরা, আছিয়া খাতুন, লাইলী, শিরিনা, রানী, কল্পনা বেগম, শিল্পী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। বক্তব্যে মফিদুল ইসলাম সরকার বলেন, শূন্য হাতে অত সু্বিধা আশা করা যায় না। লেখাপড়া ও খাওয়া দাওয়ার গুণগত মান উন্নয়ন করতে হলে টাকার প্রয়োজন। কিন্তু আমরা যদি টাকা খরচ না করে শুধু মান চাই তা আদৌ সম্ভব নয়। আবু বকর সিদ্দিক বলেন, এখানে খরচ তুলনামূলক অনেক কম। কম টাকা অথচ তাও সময়মত না দিয়ে ভাল সেবা প্রত্যাশা করা যায় না। এখানে আজ গোরাবা তহবিল খোলা হয়েছে। আমি এতে প্রতিমাসে দুইশ টাকা করে জমা রাখব। আপনারাও কিছু কিছু দেন। এটা শুধু খরচ নয় বরং সাওয়াবও। মাসউদ হাসান বলেন, ১৮ বছর পর্যন্ত বাচ্চাদের শরীর গঠনের সময়। এ সময় তাদেরকে চাহিদা মোতাবেক খাবার দিতে হবে। এজন্যে আমরা যারা মাসিক খানা, বেতন, ঘরভাড়া ও বিদ্যুৎবিল বাবদ দুই হাজার টাকার কম দেই তাদেরকে দুই হাজার টাকা পুরা করে দেওয়া উচিৎ। গরিবরা না দিতে পারলেও আশপাশ থেকে নিজ দায়িত্বে এ প্রতিষ্ঠানের গোরাবা ফান্ডের জন্যে যাকাত ও ফিতরার কিছু কিছু টাকা সংগ্রহ করে দিলে ভাল হয়। ইকবাল হাসান বলেন, স্বাস্থ্য সম্মত খানা দিতে হলে আমাদের অভিভাবকদেরকে মাসিক খরচ আরো বাড়িয়ে দিতে হবে। মাওলানা আজহারুল ইসলাম দুলাল বলেন, ফুলপুরে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে কিন্তু সব মিলিয়ে এই প্রতিষ্ঠানটিই আমার পছন্দ। এজন্যেই এখানে আমার ছেলেকে ভর্তি করেছি। আমি এর প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখব। আপনাদেরকেও খেয়াল রাখতে অনুরোধ জানাচ্ছি। এর আগে আলোচ্য বিষয়ের উপর পয়েন্টভিত্তিক আলোচনা করে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলো: এখন থেকে প্রতি মাসের ১ তারিখে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেক বিভাগে ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারীকে পুরস্কৃত করা হবে। তারপর অভিভাবকদের নিকট রেজাল্ট কার্ড পাঠানো হবে। প্রতিমাসের ৯ থেকে ১১ তারিখ মাসিক ছুটির সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। মাসিক ছুটি কাটিয়ে নির্দিষ্ট সময়ে না আসলে প্রতিদিনের জন্যে ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হবে।

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top