বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস উপলক্ষে ফুলপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা

Phulpur-Pic705.jpg

এম এ মান্নান :
বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস উপলক্ষে ময়মনসিংহের ফুলপুরে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে র‌্যালিটি শুরু হয়ে ঢাকা- হালুয়াঘাট মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া পারভীন লাকী, উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল্লাহ আলমামুন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো. শিহাব উদ্দিন খান, একাডেমিক সুপার ভাইজার পরিতোষ সূত্রধর, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা এনামুল হক, ফুলপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ড. জসিম উদ্দিন শেখ, মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ রওশন আরা বেগম, বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক, অভিভাবক ও উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগণ অংশ নেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিডিসি জুনোটিক ডিজিজ কন্ট্রোল এর আয়োজনে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ যৌথভাবে এ কর্মসূচী বাস্তবায়ন করে। এরপর উপজেলা অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে ‘জলাতঙ্ক নির্মূলে টিকাদানই মুখ্য’ প্রতিপাদ্য বিষয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান কর্মকর্তা ডা. অনুপম ভট্টাচার্য্য, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. কায়সার জামিল প্রমুখ। ডা. কায়সার জামিল বলেন, কুকুর, বিড়াল ও ব্যাজি কামড়ালে ঝাড় ফুঁক না দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে ১০-১৫ মিনিট সাবান দিয়ে ফ্যানা তোলে ধুইতে হবে ও ডাক্তারের স্মরণাপন্ন হয়ে ভ্যাকসিন নিতে হবে। সাংবাদিক এম এ মান্নানের এক প্রশ্নের উত্তরে ডা. অনুপম ভট্টাচার্য্য বলেন, র‌্যাবিস ভ্যাকসিন সাধারণত: জেলা পর্যায়ে দেওয়া হয়। তবে হত দরিদ্রদের বিবেচনায় ও চিকিৎসাসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে উর্ধ্বতন মহলে উপজেলা পর্যায়ে ভ্যাকসিন সরবরাহের চিন্তাভাবনা চলছে। আশা করছি, খুব শিগগিরই তা বাস্তবায়ন করা হবে। তিনি আরো বলেন, দিবসটি মূলত ছিল ২৮ সেপ্টেম্বর। সরকারি ছুটি থাকার কারণে ২৯ সেপ্টেম্বর আজ দিবসটি পালন করা হল। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, এ দিবসটি পালনের মূল উদ্দেশ্যই হলো জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা। প্রতি বছর এ রোগে প্রায় ২ হাজার মানুষ মারা যায়। আমরা সচেতন হলে এ থেকে রক্ষা পাব। তিনি বলেন, আপনারা এ টিকাটা নিবেন। টিকা নেওয়াতে কোন সমস্যা নেই বরং না নেওয়াতে সমস্যা। আমরা নিজেরা টিকা নিব এবং অন্যদেরকে টিকা নিতে সচেতন করব।

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top