দাও বিদায়

Goodbye.jpg

মো. আব্দুল মান্নান
১৯৯৯ সনের ১৭ নভেম্বর দাওয়াতুল হকের আমির শায়খুল হাদীস আল্লামা মাহমূদুল হাসান সাহেব দামাত বারাকাতুহুম পরিচালিত ঢাকা দক্ষিণ যাত্রাবাড়ি জামিয়া ইসলামিয়া দারুল উলূম মাদানিয়ায় বাংলা বিভাগের একজন সাধারণ শিক্ষক হিসেবে যোগদান করি। প্রায় আড়াই বছর খেদমতের পর দুই হাজার দুই সনের মাঝামাঝি সময়ে সেখান থেকে চলি আসি। আসার সময় বাংলা বিভাগে একটি বিদায় অনুষ্ঠান হয়। সেদিন ‘বিদায়’ নামে নিজ হাতে একটি কবিতা লিখে এসেছিলাম। এবার (৯ মার্চ, ২০১৯) দাওয়াতুল হকের মাসিক ইজতিমায় গেলে ওই মাদরাসার হিফজখানার উস্তাদ আমাদের ছাত্র হাফেজ মাওলানা আবু তাহের মাদানী বললেন, স্যার, আপনার নিজের হাতের লেখা কবিতা বাংলা বিভাগে আজও সংরক্ষিত রয়েছে। আমরা বার বার আপনাকে মনে করি। মাদরাসার পুরান বিল্ডিংয়ের নিচ তলায় এই প্রসঙ্গে যখন আলাপ চলছিল, ওই বিভাগের বর্তমান প্রধান উস্তাদ মাওলানা ফখরুল ইসলাম তখন সেখানে এসে হাজির হন এবং বলেন, আপনি চলে গেলেও আমরা আপনাকে ভুলিনি। আপনার স্বহস্তে লেখা কবিতাটি আজও সংরক্ষণ করে রেখেছি। লেমিনেট করে আমার টেবিলে আটকে রেখেছি। তাদের কথা শুনে কবিতাটির প্রতি নতুন করে আগ্রহ সৃষ্টি হলো। স্বচক্ষে দেখতে মন চাইলো। পরে বিকালে বাংলা বিভাগে গেলাম। পাঠকদের উদ্দেশ্যে কবিতাটি ফেইসবুকে পোস্ট করা হলো।

জ্বালা দেবার সময়
শেষ হয়ে এলো
এখন যাবার পালা,
ভাবিনি কভু এত তাড়াতাড়ি
কেমনে ডুবিল বেলা ?
সেদিন বিকালে এসেছিলাম
এখানে ডুবিল যখন বেলা।
আজিকে যখন সূর্য্য উদিল
ফুরালো মোর খেলা।
অন্ধকারে এসেছিলাম
ভোর হল তাই যাই চলে,
ক্ষণিকের পরিচয় দিয়েছিনু,
চির পরিচয় নাইবা পেলে।
আঁধার রাতের বাধা পথিক
এসেছিল তব দ্বারে
আঁধার হলেই স্মরণ করিও
পন্থপানে চেয়ে বারে বারে।
তোমাদের ছেড়ে চলে যেতে দূরে
মন কভু নাহি চাহে,
যেতে হবে তাই বাধ্য হলাম
পা বাড়াতে খোদার রাহে।
অনেক কথা বলেছিনু
অনেক রাগারাগি,
স্মরিয়া সেসব ব্যথার বানী
মোর মন করো না দাগী।
অপরিচিত ছিল যেমন
আমার সকল স্মৃতি
ভুলে যেও তেমনি করে
আমার সকল মন্দ কৃতি।
রবি যেমন ভোরে উঠে
গোলাপের মত লাল,
আবে জমজমে অবগাহণ করে
তেমনি জাগিও কাল।
পথ চলিতে যদি চকিতে
দেখা হয় তোমাদের সাথে,
তাকিও তেমনি আবির নয়নে
যেমনি সেদিন তাকাতে।
কিংবা কালের আবর্তনে যখন শুনিবে
আমার মরণ খবর,
দয়া করে হাজির হইও
দিতে আমায় কবর।

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top