ফুলপুর থেকে বিদায় নিলেন অনন্য গুণের অধিকারী ইউএনও মোহাম্মাদ রাশেদ হোসেন চৌধুরী

UNO-Rashed-1.jpg

এম এ মান্নান
এক আবেগঘন পরিবেশে মঙ্গলবার বিকালে ফুলপুর উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিদায় নিলেন অনন্য গুণের অধিকারী ফুলপুর ইউএনও মোহাম্মাদ রাশেদ হোসেন চৌধুরী। উপজেলা অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে তার বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিদায়ী ইউএনও খুব সংক্ষেপে সারগর্ভ বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যের এক পর্যায়ে তার চোখের জল ছলছল করে ওঠে। এ সময় অনেকেই তাদের অশ্রু ধরে রাখতে পারেননি। প্রধান অতিথি এমপি শরীফ আহমেদ, অনুষ্ঠানের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান এড. আবুল বাসার আকন্দ, মেয়র আমিনুল হক, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এম এ হাকিম সরকার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনোয়ারা খাতুন, ওসি একেএম মাহবুব আলম ও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে যারা বক্তব্য দিয়েছেন সকলের মুখেই ছিল বিদায়ী ইউএনও’র প্রশংসা। এমপিসহ বিভিন্ন সংগঠন তাকে বিদায়ী অভিবাদন, সংবর্ধনা ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন। হৃদয় বিদারক নানা ছন্দ ও কবিতার পংক্তি উদ্ধৃতির মাধ্যমে বিদায় অনুষ্ঠানকে প্রাণবন্তকর করে উপস্থাপনা করেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যাপক মোহাম্মাদ হাবিবুর রহমান। উপস্থাপনা সহযোগিতায় ছিলেন, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার নানা জাতীয় অনুষ্ঠানের ভাষ্যকার মো. আবুল বশার ভুইয়া। সবশেষে বালিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আইন উদ্দিনের মুনাজাতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। এর আগে বিদায়ী ইউএনওকে অত্যন্ত প্রাঞ্জল ভাষায় মানপত্র পাঠ করে শোনান, উপজেলা সমবায় অফিসার মো. কামরুজ্জামান। মানপত্রের ভাষা ও উপস্থাপনায় আবেগাকুল ইউএনওকে চোখ মুছতে দেখা গেছে।
উল্লেখ্য, গত ক’দিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ইউএনও মোহাম্মদ রাশেদ হোসেন চৌধুরীর বিদায়ের সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে হত দরিদ্র, এতিম, অনাথ ও প্রতিবন্ধীসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষের মাঝে এক ধরনের শোক বিরাজ করতে থাকে। গরিব মহিলা-পুরুষদের উপজেলায় আনাগোনা বেড়ে যায়। ইউএনও’র দরজায় এসে কেউ কেউকে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায়। হাঁস-মুরগী, সেলাই মেশিন, রিকশা, ভ্যান গাড়ী ও ঝাল-মুড়ির দোকানসহ জীবন চলার নানা অবলম্বন দিয়ে তিনি যাদের স্বাবলম্বী হতে সহায়তা করেছেন তারা তাকে এক নজর দেখতে ও একটু ধন্যবাদ জানাতে অনুষ্ঠানে এসে ভীড় জমায়। এমনকি প্রতিবন্ধীরাও তাকে হাদিয়া দিতে ভুলেনি। ব্যাপক কোন প্রচার প্রচারণা ছাড়াই আজ ১৮ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ইউএনও’র বিদায় অনুষ্ঠান করলেও অনুষ্ঠানপ্রাঙ্গণ ছিল লোকে লোকারণ্য ও নানা শ্রেণী পেশার মানুষের উপস্থিতিতে মুখরিত। মেইন রোডে কয়েকশ গজ দূরেও ছিল মাইকের হর্ণ। সেখানে বসেও লোকজনকে অনুষ্ঠান উপভোগ করতে দেখা যায়। এ যেন ছিল এক ব্যতিক্রম আয়োজন। ইউএনও তার মায়াবী ব্যবহার ও দয়াশীল আচরণের মাধ্যমে সকলের দিলকে টাচ্ করতে সক্ষম হয়েছিলেন। তিনি মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব পদে বদলি হয়েছেন। তার স্থলে ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোগদান করছেন জেবুন নাহার শাম্মী। শাম্মী তার অভাব পূরণে সচেষ্ট হবেন বলে ফুলপুরবাসির প্রত্যাশা। এমপি শরীফ আহমেদ বিদায়ী ইউএনওকে ফুলপুরের মানুষের প্রতি সুনজর রাখার আহ্বান জানান। জবাবে তিনি বলেন, আমি যেখানেই থাকি না কেন ফুলপুরের মানুষকে ভুলব না।

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top