পৌর কাউন্সিলর সাদেক হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে ফুলপুরে বিক্ষোভ মিছিল

Sadek-Hotta-1.jpg

এম এ মান্নান
ময়মনসিংহের ফুলপুরে বহুল আলোচিত পৌর যুবলীগনেতা পৌর কাউন্সিলর সাদেক হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে ফুলপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও রূহের মাগফিাত কামনায় মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাদেকের নিজ বাড়ি চরপাড়া থেকে শুরু হয়ে মিছিল পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ২০ মে রবিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলা সদরে ভাষা সৈনিক এম শামছুল হক চত্বরে এক মিলাদ মাহফিল ও শোক সভায় মিলিত হয়। মিলাদপূর্ব শোকসভায় সভাপতির বক্তব্যে এমপি শরীফ আহমেদ বলেন, সাদেককে যারা হত্যা করেছে তাদের বিচার করতেই হবে। তিনি তার বাবা সাবেক পাঁচবারের এমপি মরহুম এম শামছুল হকের নাম উল্লেখ করে বলেন, আমি যদি শামছুল হকের ছেলে হয়ে থাকি তবে সাদেক হত্যার বিচার নিশ্চিত করেই ঘরে ফিরব। বক্তব্যের শেষের দিকে তিনি সাদেকের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বলেন, আওয়ামী লীগ কোন হত্যাকারীকে আশ্রয় দিতে পারে না। যারা এর সাথে জড়িত বলে আদালতে প্রমাণিত হবে তাদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানের উপস্থাপনায় এ সময় আরো বক্তব্য দেন, মেয়র আমিনুল হক, জেলা পরিষদের সদস্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক, সাবেক ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি খলিলুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বাবু শশধর সেন, সাধারণ সম্পাদক বাদশা আলমগীর, নিহতের চাচা আমিনুল ইসলাম লিটন, যুবলীগ নেতা সাবেক ভিপি দেলোয়ার হোসেন, আমজাদ হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান, লিখন প্রমুখ।
পারিবারিক ও রাজনৈতিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সাদেক হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন। মামলার ১০ দিন চলে গেলেও পুলিশ এর কোন কূল কিনারা করতে না পারায় অনেকেই এটাও ধারণা করছেন যে, আসামিরা অনেকেই সরকারদলীয় বিভিন্ন গরুত্বপূর্ণ পদে আসীন থাকায় তদন্তে ধীরগতি ও মামলার কোন কূল কিনারা করতে পারেনি পুিলশ। এমন ধারণাকে উঁড়িয়ে দিয়ে এমপি শরীফ আহমেদ বলেন, হত্যাকারীরা যেই হোক না কেন তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবেই হবে। তিনি বলেন, আপনারা সহযোগিতা করলে সাদেক হত্যার এমন বিচার করা হবে যাতে ফুলপুরবাসির জন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকে।
এ ঘটনায় নিহতের মা হাসিনা খাতুন বাদি হয়ে ফুলপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মনিরুল হাসান টিটু, ফুলপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও ফুলপুর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রাসেল আহাম্মেদ রয়েল, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান স্বপন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুলাহ আল নোমান, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল হাসান মিলনসহ ২১ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। (মামলা নং- ০৯, তারিখ- ১১/৫/১৮, ধারা- ১৪৩, ৩৪১, ৩০২)। এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত মামলায় ৬জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সাদেকুর রহমান (৪৫), শিশির (২৫), আনোয়ারুল হক মোহন (২৯), দেলোয়ার হোসেন (৪২), হাসিবুল হাসান মিলন (২৫) ও রিজওয়ান (২৫)।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রুহুল আমিন তালুকদার সভামঞ্চে বক্তব্যে বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামীরা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। অচিরেই ঘটনার মূল রহস্য উদঘাটন সম্ভব হবে এবং বাকি আসামীদেরও দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
এ সময় বিগত কয়েকদিন পূর্বে ফুলপুরে কৃষকের পিটুনিতে নিহত উপজেলার পাঁচকাহুনিয়া গ্রামের নুরুল ইসলাম আবুর ছেলে দিনমজুর এমদাদের স্ত্রী রোজিনা তার এতিম শিশুদের নিয়ে এমপির কাছে এমদাদ হত্যার বিচার দাবী করেন। এমপি তাকেও সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেন।
উল্লেখ্য, গত ৯ মে পৌর শহর থেকে রিকশাযোগে চরপাড়া গ্রামে নিজ বাড়িতে ফেরার সময় রাত সাড়ে ৭টার দিকে চরপাড়া খাদ্য গুদাম সংলগ্ন মহাসড়কের পাশে একদল দুর্বৃত্ত কুপিয়ে হত্যা করে পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক ফুলপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাদেকুর রহমান সাদেককে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top