আজাদ দম্পতির দশ বছরপূর্তি

Barrister-Azad.jpg

এম এ মান্নান

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার পয়ারী গ্রামে জন্ম নেওয়া গর্বিত সন্তান ব্যারিস্টার আবুল কালাম আজাদ দম্পতির আজ ৭ মার্চ ২০১৮ দশ বছরপূর্তি হয়েছে। কোন দু:খ কষ্ট, বালা মসিবত ও জৈ ঝামেলা ছাড়াই তাদের এ দিনগুলি অতিক্রম হয়। এ যেন এক বেহেশতী সুখ। এটি নেহায়েতই আল্লাহ প্রদত্ত নিয়ামত। যা সবার ভাগ্যে জোটে না। অভিজ্ঞজনরা বলে থাকেন, স্ত্রী ভাল হলে দুনিয়াটাই জান্নাতস্বরূপ। অপরদিকে, স্ত্রী মন্দ হলে দুনিয়াটাই একটা জাহান্নাম বটে। তবে এটা অনেকটা নির্ভর করে পরস্পর পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধা, ভালবাসা ও হক আদায়ে যত্নবান হওয়ার উপর। পরিবারে সুখ ও আনন্দঘন পরিবেশ ধরে রাখতে ছাড়ের কোন বিকল্প নেই। পরস্পর পরস্পরকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখতে হবে। কোন অবস্থাতেই কেউ কাউকে কারো সামনে ছোট ও খাটো করতে পারবেন না। সারাদিনের সুখ দু:খ দুজনের মধ্যে ভাগাভাগি করতে হয়। আর এসব যাবতীয় বিষয়ে আজাদ পরিবারের মাঝে রয়েছে সুষম বুঝাপরা। ফলে তাদের ভালবাসা উচ্চতর পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। বলা হয়, যে স্বামীর প্রতি স্ত্রী সন্তোষ্ট সেই স্বামী উত্তম। আর যে স্ত্রীর উপর স্বামী সন্তোষ্ট সেই স্ত্রী উত্তম। ব্যারিস্টার আবুল কালাম আজাদ তার স্ত্রীর প্রতি সন্তোষ্টি প্রকাশ করে ফেইসবুক আইডিতে লিখেন যে, তোমার কষ্ট ও ত্যাগের বিনিময়ে আমার ছন্নহারা জীবন আজ সফলতায় পরিপূর্ণ । কিছুই দিতে পারিনি তোমাকে অথচ কেড়ে নিয়েছি তোমার স্বপ্ন । নিজ হাতে কবর দিয়েছি লন্ডন থেকে আইন শাস্ত্রে তোমার উচ্চ শিক্ষা ! তোমার উপর চাপিয়ে দিয়েছি দুই বাচ্চার স্কুল, সংসারসহ সব ! আমার খাবার, কোর্ট পোশাক, সব তোমার দায়িত্ব ! রাত জেগে আমার জন্য বসে থাকা আর দৈনিক নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে আমার জন্য দোয়া করা যেন তোমার রুটিন work। এক জায়গায় তিনি লিখেন, অনেক কষ্ট দিয়েছি তোমায় ! ক্ষমা করো আমাকে । এক সন্যাসীর জীবন আমার ! সংসারী হবো কিভাবে ? পথ দেখাও মোরে। একজন ব্যারিস্টার স্বামী যদি স্ত্রীর কাছে নিজেকে ছোট করে এভাবে লিখতে পারেন, তবে ওই সংসার, ওই দাম্পত্য জীবন সুখের হবে না কেন? তার স্ত্রী নিশ্চয়ই তার প্রতি খুশি হবেন। আর এতেই সংসারে বইবে সুখের বাতাস। আনন্দঘন ও প্রাণবন্ত হবে দাম্পত্য জীবন। যাদের দাম্পত্য জীবনে নানা কলহ-বিবাদ ও অশান্তি বিরাজ করছে, ব্যারিস্টার আবুল কালাম আজাদ লিটনের দাম্পত্য জীবনে তাদের জন্য থাকতে পারে বিশেষ টিপস বা উপদেশ। ব্যারিস্টার আজাদসহ উভয় জাহানে সকলের দাম্পত্য জীবন হোক সুখ সমৃদ্ধি ও আনন্দময়।

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top