ছেলে ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়ার খবর বলতে গিয়ে কাঁদলো ঝালমুড়ি বিক্রেতা বাবা

Imadpur.jpg

নুরুল আমিন
আজ শুক্রবার ১৩ সেপ্টেম্বর এক মেধাবী সন্তানের গর্বিত পিতার কথা বলছি। সে ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার আমার জন্মস্থান ইমাদপুর গ্রামের এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী গোলাম রব্বানী। এলাকায় প্রতিদিন বাড়ি বাড়ি ঘুরে ঝালমুড়ি বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করেন । দেখা হলে এর আগেও ছেলের লেখাপড়ার খোঁজখবর দিত। আজ সকালে গ্রামের বাড়ি থেকে ফুলপুর আসার পথে ঝালমুড়ির গাড়িসহ রব্বানীর সাথে দেখা। আমাকে দেখেই বললো “সাংবাদিক ভাই, আমার ছেড়াডা ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাইছে “। ছেলের এ সাফল্যের কথা বলতে বলতে এক পর্যায়ে চোখের জল ধরে রাখতে পারেনি রব্বানী। আমি যেন তার চোখে আজ এক অন্যরকম আনন্দাশ্রু দেখলাম । আমার কিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে না পেরে বললো ছেলে বাড়িতেই আছে। তাকে বিদায় দিতে বিকালে তার বাড়িতে গিয়ে দেখা করলাম সে মেধাবী ছাত্রের সাথে। জানলাম ঢাকা ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি ডুয়েট এ ১৭শ ২৩ জন মেধাবী ছাত্রের সাথে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সে উত্তীর্ণ হয়েছে । আগামী ২২ অক্টোবর ভর্তির জন্য যাবে সে। ভর্তির খরচ জোগাড় হয়েছে কিনা প্রশ্ন করলে সে জানায়, ময়মননিংহ পলিটেকনিক কলেজের তার এক স্যার ভর্তির সব খরচ দিবেন বলে তাকে জানিয়েছেন। পরে টিউশনি করে খরচ চালানোর চেষ্টা করবে বলেও জানায় রব্বানীর ছেলে। তার অসচ্ছল পরিবারের সদস্যদের মাঝে আনন্দের পাশাপাশি লেখাপড়ার খরচ নিয়ে এক ধরনের হতাশা লক্ষ্য করলাম। তার পিতা রব্বানী জানান “অনেক কষ্ট করে ছেলেরে এ পর্যন্ত আনছি। অহন খরচ বাড়বো । ছেলের হাতে লেখা পড়ার খরচটা দিতে পারলে আরো ভালো লাগতো”। তিনি ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
বিঃদ্রঃ অনিবার্য কারনে ছাত্রের ছবি প্রকাশ করা হলো না।
In einem fall sind beispielsweise 10 sklaven ghostwriter agentur belegt

Share this post

PinIt
mamannan537

mamannan537

I'm M A Mannan. I'm a founder principal of Excellent School & Madrasah It's new name is Darul Ihsan Qasimia (Excellent) Madrasah. It's situated at Phulpur in Mymensingh. I'm also a journalist. I write in The Daily Tathyadhara, The Dainik Bangladesher Khabor and Bangladesh Pratidin.

scroll to top