বাংলাদেশে ১ হাজার ফুট লম্বা ভাসমান সেতু

Jhapa-setu.jpg

এম এ মান্নান
বাংলাদেশে এই প্রথম নির্মিত হলো ১ হাজার ফুট দৈর্ঘ্য ও ৮ ফুট প্রশস্ত একটি ভাসমান সেতু। যশোর জেলার মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ এলাকায় ঝাপা বাওরে স্থানীয় একটি উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সম্প্রতি এ সেতু নির্মিত হয়।

ফাউন্ডেশনের ৬০ জন সদস্য তাদের নিজস্ব জমানো প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সেতুটি নির্মাণ করে এক অনন্য স্বেচ্ছাসেবার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে যা দেশ ও বিদেশের যে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে অনুপ্রেরণা যোগাবে। বাঁশ-কাঠ, লোহা ও ড্রাম দিয়ে তৈরি এই সেতুটি নির্মিত হওয়ায় ঝাপা বাওরের উভয় পাশের প্রায় ৯টি গ্রামের মানুষের চলাচল সুবিধা বৃদ্ধি পেয়েছে। শুধু তাই নয়, এর পাশাপাশি বৃদ্ধি পেয়েছে তাদের অর্থনৈতিক ও সামাজিক জীবন মান উন্নয়ন।

সমাধান হয়েছে নানা দুর্ভোগ ও দুর্ঘটনার।

সেতুটি নির্মাণে ব্যবহৃত হয়েছে প্রায় ৮শ প্লাস্টিকের ড্রাম, ৮শ মণ লোহার এঙ্গেল ও আড়াইশ মণ লোহার শীট। বাংলাদেশে এটাই ভাসমান সবচেয়ে বড় সেতু। এর নিচ দিয়ে নৌকা চলাচলের সুবিধা রয়েছে।

সেতুটি ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য ইতোমধ্যে দর্শনীয় স্থানে পরিণত হয়েছে। সিলেট ও ফেনীসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন ওখানে গড়ে ১০ হাজার দর্শনার্থীর সমাগম হচ্ছে বলে জানা গেছে। অবসরে আপনিও দেখে আসতে পারেন মনোরম ও স্নিগ্ধ সুন্দর ভাসমান এই সেতুটি।

Top