ফুলপুরে বালকরাই বন্ধ করে দিলো বাল্যবিয়ে

এম এ মান্নান:
ময়মনসিংহের ফুলপুরে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলো সামাজিক সংগঠন ফুলপুর ক্লিন সোসাইটির বালকরা। তাদের তৎপরতায় বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল সাবিনা (১২) নামে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী। আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে উপজেলার পারতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সাবিনা ওই গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের কন্যা। সে কাকনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ২০১৮ সনে সমাপনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে স্থানীয় আল হুমাইরা (রা) মহিলা মাদরাসায় বিশেষ জামাতে ভর্তি হয়।
ফুলপুর ক্লিন সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রাহাত বলেন, প্রথমে আমরা ওই এলাকার একজন বন্ধুর মাধ্যমে বাল্যবিয়ের বিষয়টি অবগত হই। পরে সংগঠনের কয়েকজন নেতাকে নিয়ে দ্রুত সেখানে গেলে কন্যা পক্ষের লোকজন আমাদের নিকট প্রকৃত ঘটনা আড়াল করতে অপচেষ্টা করেন। তারা বলেন এখানে এই নামের কোন মেয়েই নেই। বাল্যবিয়ের তো প্রশ্নই আসে না। পরে আশপাশের লোকজনের নিকট যাচাই বাছাইয়ে বাল্যবিয়ে হচ্ছে মর্মে নিশ্চিত হই। তারপরও কন্যাপক্ষকে বুঝাতে ব্যর্থ হয়ে আমরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুল ইসলামের স্মরণাপন্ন হলে তিনি ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরকারকে দায়িত্ব দেন। চেয়ারম্যানের সমস্যা থাকায় স্থানীয় মেম্বার আলী আকবরকে দায়িত্ব দেন। পরে আরো কয়েকজন মুরুব্বি এসে জড়ো হলে তাদের সামনে বাল্যবিয়ের ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরলে কন্যাপক্ষ ভুল স্বীকার করে বরযাত্রীকে আসতে নিষেধ করে দেন ও ১৮ বছরের আগে বিয়ে না দেওয়া মর্মে আমাদের একটি মুচেলকা দেন।

এ সময় ফুলপুর ক্লিন সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আবির, কোষাধ্যক্ষ তাওকীর আহমাদ পান্না, উপজেলা শাখার সভাপতি জাহিদ হাসান জয়, প্রচার সম্পাদক নিহাদ আকন্দ, দপ্তর সম্পাদক নাজমুস সাকিব, সাবিনার দাদা নুরুল ইসলাম, চাচা আব্দুল খালেক ভুট্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Top