আলেমদের কাছ থেকে মানুষকে দূরে রাখতে চায় একটা সম্প্রদায়

Ittefaq.jpg

এম এ মান্নান
আলেমদের কাছ থেকে মানুষকে দূরে রাখতে চায় একটা সম্প্রদায়। আলেমদের সুহবতে মানুষ আসলে তারা নামাজী হয়ে যাবে, সুন্নাতী হয়ে যাবে ও মানুষ দীনদার হয়ে যাবে বলে একটা সম্প্রদায় মানুষকে আলেমদের কাছ থেকে দূরে রাখতে চায়।
ময়মনসিংহের ফুলপুর বাসস্ট্যান্ড জামে মসজিদে বৃহস্পতিবার দুপুরে আয়োজিত ইত্তেফাকুল উলামার এক সভায় মরহুম পীর আল্লামা শরফুদ্দীন সাহেবের ছেলে মাওলানা মুফতী শরীফুল ইসলাম এ কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রখ্যাত আলেমদের বয়ান শোনার ব্যাপারে আপত্তি রাখতে শুরু হয়েছে। এভাবে কৌশলে মানুষকে আলেমদের থেকে দূরে রাখার চেষ্টা চলছে। এজন্যে আলেমদেরকে জনসম্পৃক্ত হতে হবে। জনগণের কাছে যেতে হবে। ইত্তেফাকুল উলামা ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি মুফতি গোলাম মাওলা ভুইয়া বলেন, সাধারণ মানুষকে কুরআনের সাথে সম্পৃক্ত করতে পারলেই তাদের সাথে আলেমদের সম্পৃক্ততা বাড়বে। সেই লক্ষ্যে ইত্তেফাকুল উলামা রমজানকে সামনে রেখে জেলার প্রতিটি উপজেলায় এমনকি মহল্লা মহল্লায় মসজিদে মসজিদে বয়স্কদের কুরআন শিক্ষা কার্যক্রম চালু করতে যাচ্ছে। শুধু তাই নয়, মসজিদভিত্তিক তাফসীরুল কুরআন মাহফিলের আয়োজন করতে হবে। তিনি বলেন, যেখানে তাফসীরুল কুরআন মাহফিল হবে সেখানে মদ ও জুয়ার আসর জমতে পারবে না। সেখানে মানুষ বদ আমল ত্যাগে উৎসাহিত হয়ে নামাজী হবে, কুরআন তিলাওয়াতকারী হবে, রোজাদার ও দীনদার হবে। এতে করে সমাজ থেকে বদদীনী পরিবেশ দূরীভূত হবে এবং আলেমদের সাথে সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা বাড়বে। ইত্তেফাকুল উলামার উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোদারিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আব্দুল খালেক বলেন, এত’আতী, লা-মাজহাবী ও কাদিয়ানী ফেৎনা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। এগুলোকে শুরুতেই প্রতিহত করতে হবে। এজন্যে দাওয়াত, লিফলেট বিতরণ ও মসজিদে মসজিদে আলোচনা সভা করতে হবে। ইত্তেফাকুল উলামার উপজেলা কমিটির সভাপতি জামিয়া আরাবিয়া আশরাফুল উলূম বালিয়ার মুহতামিম মাওলানা আইন উদ্দিনের সভাপতিত্বে এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, হাফেজ মাওলানা মজিবুর রহমান, মাওলানা আবুল কাসেম প্রমুখ। এ সময় ফুলপুর বাসস্ট্যান্ড জামে মসজিদের পেশ ইমাম ও খতীব হাফেজ মাওলানা মাইন উদ্দিন, ছনকান্দা বাজার জাম মসজিদের ইমাম ও খতীব হাফেজ মাওলানা মুহিউদ্দিন, আদর্শ মাদরাসার উস্তাদ মুফতি নজরুল ইসলাম, আমুয়াকান্দা মাদরাসার উস্তাদ হাফেজ আমিনুর রহমান, মোহাম্মদী তাহফিজুল কুরআন মাদরাসার উস্তাদ হাফেজ ফরিদ আহমাদ, মাওলানা কেফায়েত উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Top