সহযোগী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি লাভ করলেন ফুলপুরের কৃতি সন্তান আকবর আলী আহসান

448622.jpg

এম এ মান্নান
সরকারি আনন্দ মোহন কলেজের সনামধন্য সহকারি অধ্যাপক মোহাম্মদ আকবর আলী আহসান ২৫ অক্টোবর ২০১৮ সহযোগী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি লাভ করেছেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে ওই খবর জানা যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তাঁর পদোন্নতির খবর ছড়িয়ে পড়লে তাঁকে বিভিন্ন মহল থেকে কংগ্রেচুলেশন্স, ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো অব্যাহত রয়েছে।
আকবর আলী আহসান ফুলপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের চরপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর বাবা মোহাম্মদ মন্তাজ আলী একজন গর্বিত কৃষক। ছোটবেলা থেকেই তিনি ছিলেন প্রখর মেধার অধিকারী। সকল ক্লাসেই তাঁর রয়েছে গৌরবজনক রেজাল্ট। কাজিয়াকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষায় বৃহত্তর ফুলপুর উপজেলায় তিনি দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন। আর জুনিয়র বৃত্তি পরীক্ষায় তিনি লাভ করেন ষষ্ঠ স্থান । এরপর তিনি ফুলপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হন। পাইলট স্কুল থেকে স্টার মার্কসহ মাধ্যমিক শিক্ষা শেষ করে সরকারি আনন্দ মোহন কলেজে ভর্তি হন। আনন্দ মোহন থেকে প্রথম বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে তিনি ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তি বিভাগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। সেখান থেকেও অনার্স ও মাস্টার্সে প্রথম শ্রেণি পেয়ে উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি ২২তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে প্রথমে গফরগাঁও সরকারি কলেজে শিক্ষা ক্যাডারে যোগদান করেন। সেখান থেকে ১ বছর পর গুরু দয়াল সরকারি কলেজে বদলি হন এবং সেখান থেকে সহকারি অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পেয়ে সরকারি আনন্দ মোহন কলেজে যোগদান করেন। এরপর ২৫ অক্টোবর বৃহস্পতিবার তিনি সহকারি অধ্যাপক হতে সহযোগী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পেলেন। নিবেদিত শিক্ষক আকবর আলী আহসান শিক্ষকতার পাশাপাশি সামাজিক নানা কর্মকান্ডেও সময় দিয়ে থাকেন। একটু অবসর পেলেই তিনি ছুটে যান এলাকায়। দরিদ্রদের নানাভাবে সহযোগিতার পাশাপাশি সামাজিক বনায়নে ভূমিকা রেখে ইতোমধ্যে তিনি সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছেন ও এলাকায় সাড়া জাগিয়েছেন। ফুলপুরকে তিনি ফুলের মত সাজাবার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে চলেছেন অবিরত। তাঁর সে আকাঙ্খা পূরণে এলাকাবাসির প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতাসহ তাঁর প্রতি রয়েছে অকুণ্ঠ সমর্থন।

Top