চিটারি বাটপারি বা চুরির টাকায় কুরবানী আদায় হবে না

Qurbani.jpg

এম এ মান্নান/ হাফেজ আব্দুস সাত্তার
চিটারি, বাটপারি, সুদ, ঘুষ বা চুরির টাকা দিয়ে কুরবানী করলে তা আদায় হবে না। ১০ জিলহ্জ্ব থেকে ১২ জিলহজ্ব পর্যন্ত সময়ের মধ্যে যার নিকট ফিতরা ওয়াজিব হওয়া পরিমাণ অর্থ/সম্পদ থাকে তার কুরবানী করা ওয়াজিব। এ প্রসঙ্গে ফেইসবুক থেকে সংগ্রহ করা রূপক একটি ঘটনা তুলে ধরা হলো: এক প্রসিদ্ধ চোর জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়ে কুরবানীর ফযিলত সম্পর্কে মসজিদের ইমাম সাহেবের বয়ান শুনে তার অন্তরটা নরম হয়ে যায়৷ বাড়ি ফিরে সে ভাবে, যা হয় হবে, এমন ফযিলতপূর্ণ কুরবানী বাদ দেয়া যায় না। তাই সে ওই রাতেই কুরবানীর জন্য পাশের গ্রাম থেকে একটি গরু চুরি করে আনে। .গরু নিয়ে বাড়ি ফেরার সময় স্থানীয় মসজিদের ইমাম সাহেব ফজরের নামাজ পড়তে গিয়ে তা দেখে ফেলেন। ওই চোর চুরি করা গরু নিয়ে বাড়ি ফিরছে দেখে ইমাম সাহেব তাকে জিজ্ঞেস করলেন, এত সকালে গরু পাইলে কোথায়? তুমি তো গরীব মানুষ। এই গরু তো তোমার হওয়ার কথা না। তবে গরু পাইলে কোথায়? চুরি করেছ নাকি? এই মিয়া, কথা বল না কেন? কার গরু চুরি করে নিয়ে যাচ্ছো? .এতক্ষণে চোর জবাব দেয়। সে বলে- হুজুর, জুমার নামাজে কুরবানীর ফযিলত সম্পর্কে আপনি বলেছেন, কুরবানী করলে পশুর গায়ের লোম পরিমাণ সওয়াব পাওয়া যায়। এছাড়াও আপনি যে সুন্দর সুন্দর বয়ান করেছেন, তা শুনে আমার অন্তরটা নরম হয়ে যায়। আমি মনে মনে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যেভাবেই হোক না কেন, কুরবানী একটা দিতেই হবে। তাই গরুটি কুরবানী দিতে নিয়ে যাচ্ছি। .
ইমাম সাহেব বললেন, চুরি করে কুরবানী দিলে তো কুরবানী আদায় হবে না বরং গুনাহ হবে৷ চোর বলল- হুজুর, এ নিয়ে আপনি টেনশন কইরেন না। এটা আমার ব্যাপার। আমি এর হিসেবও মিলিয়ে রেখেছি। চুরি করলে যে পরিমাণ গুনাহ হবে, কুরবানী দিলে সেই পরিমাণ সওয়াব হয়ে যাবে। গুনাহ আর সওয়াবে কাটাকাটি করলে উভয়টা শেষ হয়ে যাবে। মাঝখান থেকে গোশত খাওয়া যাবে ফাও।
চোরের মত করে যারা ভাবেন, তাদের কুরবানী হবে না। গল্পটি রূপক হলেও এ ধরনের মানুষ আমাদের সমাজে থাকা বিচিত্র নয়। বাস্তবে গরু চুরি করে কুরবানী না দিলেও, সুদ-ঘুষের টাকায়, শ্রমিকের হক মেরে, চিটারি-বাটপারি করে, হক্বদারের হক্ব আদায় না করে, দূর্নীতি করে টাকার পাহাড় গড়ে অবৈধভাবে কামাই করা টাকা দিয়ে কুরবানী দিচ্ছেন এমন লোক সমাজে থাকলে থাকতেও পারেন। তাদের সতর্ক করতেই এ লেখার আয়োজন। পবিত্র কুরবানীকে সামনে রেখে মহান আল্লাহ পাক আমাদের বুঝার ও সঠিকভাবে আমল করার তাওফীক দান করুন।

Top