রাস্তার পাগলী মা হয়েছেন বাবা হয়নি কেউ, অনেকে এমপি হয়েছেন ভোট দেয়নি কেউ — বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী

Qader-Siddiqui3.jpg

এম এ মান্নান
রাস্তার পাগলী যেমন মা হয়েছেন বাবা হয়নি কেউ; তেমনই এদেশে অনেকেই এমপি হয়েছেন কিন্তু ভোট দেয়নি কেউ। বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ভোটবিহিন নির্বাচন আমরা চাই না। চুরি বিষয়ে তিনি বলেন, যদি দেখতাম হলমার্ক ও শেয়ার বাজার চোরদের বিচার হয়েছে তবে খালেদার বিচার মেনে নিতাম। এই দুই জায়গায় দুইশ কোটি থেকে প্রায় চার হাজার কোটি টাকা চুরি হয়েছে। কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি মুক্তিযুদ্ধের কিংবদন্তি বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলায় এক জনসভায় এ কথা বলেন। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া দুই কোটি টাকা চুরি করেছেন একথা দেশের কেউ বিশ্বাস করবে না। তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে থানায় মামলা নিবে না আর বিএনপির বিরুদ্ধে হলে চেইচ্যা ফেলাবে। এগুলো চলবে না। তিনি বলেন, পাকিস্তান থেকে হয়েছে নারীস্থান। প্রধানমন্ত্রী নারী, বিরোধী দলীয় নেত্রী নারী, এরশাদও যেন একটা নারী। খালি নারী, শাড়ি আর চুরি। যারা এসব থেকে মুক্তি চান তারা গামছা ধরেন। না চাইলে শাড়ি চুরিতে থাকেন। তিনি আরও বলেন, শক্ত করে গামছা ধরলে এত চুরি হতো না। পাহারা দিতে পারতাম। ১৪ মার্চ ২০১৮ বুধবার বেলা ডোবার পূর্ব মহুর্তে ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের কাইচাপুর সিনিয়র আলিম মাদরাসা মাঠে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী আরও বলেন, শেখ হাসিনা বলে খালেদা জিয়া চোর আবার খালেদা জিয়া বলে শেখ হাসিনা চোর। তাহলে আমরা কি চোরের দেশে বাস করি? বক্তব্যে তিনি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর কঠোর সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, রাস্তার পাগলী যেমন মা হয়েছেন বাবা হয়নি কেউ; তেমনই এদেশে এমপি হয়েছেন অনেকে কিন্তু ভোট দেয়নি কেউ। ভোটবিহিন নির্বাচনের তীব্র সমালোচনা করে তিনি একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও সকলের অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দাবী করেন। এ সময় উপজেলার বালিয়া ইউনিয়ন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি আজিজুল হক তালুকদারের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন, কেন্দ্রীয় কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার বীরপ্রতীক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দেলোয়ার, ময়মনসিংহ জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এম আব্দুর রশিদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি ইদ্রিস আলী শেখ, যুগ্ম সম্পাদক শাহিনুর আলম শাহিন, কেন্দ্রীয় যুব আন্দোলন সভাপতি হাবিবুন-নবী সোহেল, নাটোর জেলা সভাপতি শহিদুল্লাহ মুন্সি, শেরপুর জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি জুবায়দুল ইসলাম বাবু, ফুলপুর উপজেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, হালুয়াঘাট উপজেলা সভাপতি আব্দুস সালাম শেখ, যুব আন্দোলনের ইয়াসীন খান, রাজিব গোস্বামী, আবুল মনসুর উজ¦ল প্রমুখ। ময়মনসিংহ জেলা কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিল্লাল হোসেনের উপস্থাপনায়- কৃষক শ্রমিক জনতা, গড়ে তোল একতা। যুদ্ধ হবে আরেকবার গামছা হবে হাতিয়ার’ শ্লোগানে হালুয়াঘাট উপজেলা সভাপতি আব্দুস সালাম শেখ বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমরারে একবারও ডাকেনি যে, যারা আমার বাবার জন্য যুদ্ধ করেছিল তাদের নিয়ে একবার একটু বসি। হাবিবুন নবী সোহেল বলেন, পরিবারতন্ত্রের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে সারা বাংলায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। ২০০৮ সনে কাইচাপুর কেন্দ্রে পাস করেছিল কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ। তাই কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমি আজ এখানে বক্তব্য দিতে আসিনি; আমি এসেছি আপনাদের ধন্যবাদ জানাতে। এ সময় তিনি স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কাশেমের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, যাদের কোন দয়া নাই, মায়া নাই, বিবেক নাই তাদের সাথে থাকতে চাই না। আসুন, আমরা নির্যাতিত মানুষের পাশে দাঁড়াই।

Top